কেবল-ডিটিএইচ বিলে বড় বদল, ফেব্রুয়ারি থেকেই কত আসবে বিল ? হিসাব করুন নিজেই । sHARE করুন আপনার বন্ধু ও পরিচিতদের সাথে ।

The Indian Express বাংলা :
‘চ্যানেল সিলেকটর অ্যাপ্লিকেশন’ বার করল ট্রাই

কেবল বা ডিটিএইচ পরিষেবা ক্ষেত্রে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকেই লাগু হয়েছে ট্রাইয়ের নয়া নিয়ম। প্রাথমিকভাবে গ্রাহকদের মধ্যে এ বিষয়ে নানা বিভ্রান্তি তৈরি হলেও ট্রাই জানিয়েছে নতুন নিয়মে সুবিধাই হবে গ্রাহকদের। নয়া নিয়ম অনুযায়ী, গ্রাহকদের কাছে চ্যানেল পছন্দ করে নেওয়ার পূর্ণ স্বাধীনতা থাকছে। এখন থেকে আর ডিটিএইচ কোম্পানি বা কেবল অপরেটরদের বেছে দেওয়া চ্যানেল নিতে গ্রাহকরা বাধ্য নয়। কিন্তু নতুন নিয়মের অধীনে ঠিক কত টাকা খরচ করতে হবে তা নিয়ে গ্রাহকদের মধ্যে বিস্তর বিভ্রান্তি। অনেকেই ট্রাইয়ের এই নতুন নিয়ম ঠিক বুঝে উঠতে পারছেন না কীভাবে কোন চ্যানেলের জন্য কত টাকা দিতে হবে এবং কীভাবে এই ১০০ টি চ্যানেল বাছাই করবেন। ফলে সাধারণ গ্রাহকদের জন্য এই প্রতিবেদনে বিষয়টি সহজে ব্যাখ্যা করা হল।

নতুন নিয়মে টেলিভিশনের বিল বাবদ মাসিক খরচ কত হবে ?

নতুন নিয়মে প্রতি মাসে গুনতে হবে নেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি ফি (এনসিএফ)। ১০০টি চ্যানেল প্যাকের জন্য এনসিএফ বাবদ খরচ হবে ১৩০ টাকা। বেসিক ১০০টি চ্যানেলের মাসিক প্যাকের সঙ্গে আরও অন্যান্য চ্যানেল নিলে, সেগুলির নিজস্ব দাম ছাড়াও ২৫টি চ্যানেলের স্ল্যাব বাবদ আরও ২০ টাকা অতিরিক্ত এনসিএফ দিতে হবে। এভাবে যা দাম দাঁড়াবে তার সঙ্গে ১৮ শতাংশ জিএসটি যুক্ত হবে। আর যদি, আপনি বেসিক ১০০টি চ্যানেলই কেবল নেন, সে ক্ষেত্রে ১৩০ টাকা এবং ১৮% জিএসটি যোগ করে মোট ১৫৩ টাকা বিল হবে। অর্থাত্‍ আপনি যদি মোট ১৫০ টি চ্যানেল বেছে নেন, তাহলে আপনার NCF হবে ১৩০+২০+২০=১৭০ টাকা, সঙ্গে ১৮ শতাংশ জিএসটি, মোট খরচ হবে ২০০ টাকা। মনে রাখবেন এটি শুধুমাত্র নেটওয়ার্ক ক্যাপাসিটি ফি। সংশ্লিষ্ট পেইড চ্যানেলের যা দাম তা জিএসটি-সহ যোগ হবে আপনার বিলে।

উল্লেখ্য, সব চ্যানেল ব্যয়বহুল নয়। আপনি প্রতি মাসে ৫০ পয়সা খরচেও নিউজ চ্যানেল পেতে পারেন। একটি চ্যানেলের সর্বাধিক মূল্য ১৯ টাকা পর্যন্ত হতে পারে। তবে, টাটা স্কাই এবং অন্যান্যরা নিজস্ব প্যাকেজ প্রস্তুত করেছে বলে গ্রাহকের খরচা কিছু ক্ষেত্রে বেড়ে যাচ্ছে বলে খবর। তবে খেয়াল রাখবেন, আপনি কোন চ্যানেল দেখবেন তা কেবল আপনার ইচ্ছাধীন। কোনও প্রকার প্যাকেজ নিতে গ্রাহক কখনও বাধ্য নন। তবে মনে রাখবেন, ফ্রি টু এয়ার চ্যানেলগুলির মধ্যে থেকে আপনি বেসিক ১০০টি চ্যানেল বেছে নিতে পারেন। কিন্তু, পেইড চ্যানেল নিলে, সেগুলির যা দাম তা আপনাকেই বহন করতে হবে। ২৫টি ফ্রি দূরদর্শন চ্যানেল থাকবে আপনার প্যাকে। পছন্দের চ্যানেলের তালিকা থেকে এই চ্যানেলগুলি আপনি বাদ দিতে পারবেন না।
চ্যানেল বোকে কী?

বেশ কিছু সম্প্রচারকরী সংস্থা ঠিক করেছে, নির্দিষ্ট কয়েকটি চ্যানেলের জন্য মোট একটা অঙ্কের টাকা দিতে হবে। এটিকেই বলা হচ্ছে চ্যানেল বোকে। যেমন ধরুন স্টার নেটওয়ার্কের অন্তর্ভুক্ত চ্যানেলগুলি থাকবে নির্দিষ্ট একটি বোকের মধ্যে। সে ক্ষেত্রে স্টারের সবকটি চ্যানেল মিলিয়ে একটা মোট দাম দিলেই আপনি ওই চ্যানেলগুলি দেখতে পাবেন। কিন্তু, আপনাকে গোটা বোকেই নিতে হবে, এর কোনও বাধ্যবাধকতা নেই। একটি বোকের অন্তর্ভুক্ত নির্দিষ্ট একটি বা একাধিক চ্যানেল পছন্দ করে শুধু সেটির বা সেগুলির জন্য দাম দিতে পারবেন আপনি। এ ক্ষেত্রে ট্রাইয়ের নির্দেশিকা স্পষ্ট।
এইচডি চ্যানেলের খরচ?

চ্যানেল প্যাক তৈরি করার সময় আপনার কাছে HD বা SD চ্যানেল বেছে নেওয়ার বিকল্পও থাকবে। একটি এইচডি চ্যানেলের খরচ, ২টি এসডি চ্যানেলের সমান। সুতরাং আপনার তালিকাতে যদি ১০০টি চ্যানেলের মধ্যে ১০ টি এইচডি চ্যানেল থাকে তাহলে তা ৪০ টি এসডি চ্যানেলের সমান।

বিভিন্ন ডিটিএইচ কোম্পানি গ্রাহকদের জন্য ট্রাইয়ের নিয়ম মেনে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা নিয়ে এসেছে। এগুলি জানতে প্রত্যেকের ওয়েবসাইট বা অ্যাপও ব্যবহার করতে পারেন। গ্রাহকদের সুবিধার জন্য ‘চ্যানেল সিলেকটর অ্যাপ্লিকেশন’ বার করেছে ট্রাই। ডিটিএইচের ১০০টি চ্যানেলের মধ্যে গ্রাহকের নিজের পছন্দ অনুযায়ী চ্যানেল বাছাইয়ে সাহায্য করবে এই অ্যাপ।

আমাদের পেজ ফ্লো করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ জানায় ।

137total visits.